1. admin@gmail.com : দৈনিক আমার সময় : দৈনিক আমার সময়
  2. : admin :
মাহে রমজান উপলক্ষে একরাতের ব্যবধানেই সবজির দাম বৃদ্ধি - দৈনিক আমার সময়

মাহে রমজান উপলক্ষে একরাতের ব্যবধানেই সবজির দাম বৃদ্ধি

অনলাইন ডেস্ক
    প্রকাশিত : রবিবার, ২৬ মার্চ, ২০২৩
সায়েম খান, মানিকগঞ্জ প্রতিনিধি:
পবিত্র মাহে রমজানকে সামনে রেখে মানিকগঞ্জের হরিরামপুরের বিভিন্ন হাট বাজারে সবজির বাজার চড়া হয়ে উঠেছে বলে জানা গেছে।
রোজার আগের দিন থেকেই বেড়ে গেছে কাঁচা সবজির দাম। কিছু কিছু সবজির দাম বেড়েছে ১০ থেকে ২০ টাকা পর্যন্ত। পবিত্র রমজান মাস শুরুর আগে বাজারে নিত্যপণ্যের দাম বাড়াটা যেন নিয়ম হয়ে দাঁড়িয়েছে।
এরই ধারাবাহিকতায় রোজা শুরুর আগের দিন সবজির বাজার চড়া হয়ে উঠেছে। এক রাতের ব্যবধানেই বেড়ে যাচ্ছে বিভিন্ন ধরনের কাঁচা সবজির দাম। ফলে রোজায় নিম্নবিত্তেরা পরেছেন বিপাকে।
বৃহস্পতিবার উপজেলার বিভিন্ন বাজার ঘুরে দেখা যায়, বেগুন বিক্রি হচ্ছে ৫০-৬০ টাকা কেজি দরে, যা একদিন আগেও ছিল ৩০-৪০টাকা। শসার কেজি বিক্রি হচ্ছে ৬০ টাকা, যা ছিল ৩৫-৪০ টাকা। করলা বিক্রি হচ্ছে ৮০ টাকা কেজি দরে। যা ছিল ৬০-৭০টাকা। পটল বিক্রি হচ্ছে ৭০-৮০ টাকা কেজি দরে। যা ছিল ৬০ টাকা। আলু বিক্রি হচ্ছে ২৫ টাকা দরে, যা বেশ কিছু দিন ধরেই ছিল ২০ টাকা। আদা ১৩০ টাকা, যা ছিল ১০০-১২০ টাকা। টমেটো ৪০ টাকা কেজি দরে বিক্রি হচ্ছে যা একদিন আগেও ছিল ২৫-৩০ টাকা। তবে কাঁচা মরিচ অপরিবর্তিত ৯০-১০০ টাকা দরে বিক্রি হচ্ছে।
কাঁচা সবজির দাম আরও বাড়বে এবং আগামী এক সপ্তাহ পরে দাম একটু কমতে পারে বলে জানিয়েছেন একাধিক খুচরা ব্যবসায়ী। উপজেলার ঝিটকা বাজারের কাঁচামাল ব্যবসায়ী পবন বলেন, আমাদের এলাকায় সবজির উৎপাদন অনেক কমে গেছে। ফলে আমদানী কম। এ জন্য দামও অনেকটা কম বেশি হয়। আর রোজার কারণে রোজা শুরুর আগে সবজির দাম এমনিতেই একটু বেশি হয়।
কাঁচামাল ব্যবসায়ী রানা বলেন, আমরা যেভাবে কিনে আনি, ওই হারেই বিক্রি করি। রোজার মধ্যে দাম একটু বাড়তিই থাকে।
সবজি কিনতে আসা ফারজানা বলেন, একদিন আগে যে দামে সবজি কিনেছি। আজ সেই সবজিই কেজি প্রতি ১০- ২০ টাকা বেশি। রোজার একদিন আগে থেকেই সবজির দাম বাড়তে থাকে। এটা যেন একটা নিয়মে দাঁড়িয়ে গেছে। এক রাতের মধ্যেই সবজির দাম বৃদ্ধি পায়। এটা কিভাবে সম্ভব??
গোয়ালবাগ গ্রামের নার্গিস বলেন, রাতারাতিই সবজির দাম বেড়ে গেছে। জিনিসপত্রের যে দাম, আমাদের তো বেঁচে থাকাই কষ্টকর।
জোলা ভোক্তা অধিকার সংরক্ষণ অধিদপ্তরের সহকারী পরিচালক আসাদুজ্জামান রুমেল জানান, নিত্যপণ্যের বাজার মনিটরিং চলছে। কোনো অনিয়ম পেলে কঠোর ব্যবস্থা গ্রহণ করা হবে। পর্যাক্রমে প্রতিটি হাটবাজারেই অভিযান অব্যাহত থাকবে।

Please Share This Post in Your Social Media

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

আরও পড়ুন
© All rights reserved © dailyamarsomoy.com