১০টি উপায়ে ফ্ল্যাটের মূল্য বৃদ্ধি করুন

16
cof

হতে পারে আপনি নতুন কোন ফ্ল্যাট ক্রয় করেছেন কিংবা বহুদিন যাবত থেকে আসছেন একই বাসায় এবং এখন ফ্ল্যাট বিক্রয় করতে চাচ্ছেন। আপনার ফ্ল্যাট এমন একটি বিনিয়োগ যার চাহিদা সময়ের সাথে কেবল বাড়তেই থাকবে। আর এই চাহিদা এবং ফ্ল্যাটের মূল্য বৃদ্ধি করুন সহজ ১০টি উপায়ে। চলুন, তাহলে উপায় গুলো জেনে নেই।

পরিষ্কার-পরিচ্ছন্নতা রাখুন

একজন ভবিষ্যৎ ফ্ল্যাটের মালিক হিসেবে যে কেউ চাইবেন, তার ফ্ল্যাটের একটি অগ্রিম ছবি মস্তিষ্কে একে ফেলার। তিনি কিভাবে এই ফ্ল্যাটটি নিজের মত করে সাজিয়ে নিবেন তার মোটামুটি একটা ধারণা তিনি অর্জন করে ফেলা। তাই আপনার বাসাটি যদি অপরিষ্কার এবং এলোমেলো থাকে, তবে তা ফ্ল্যাটের ভবিষ্যৎ মালিকের ওপর ভালো কোন প্রভাব ফেলবে না। আপনার পুরানো কাপড়, বই, ম্যাগাজিন এবং অপ্রয়োজনীয় যা কিছু আছে তা সরিয়ে ফেলুন। আপনার ফ্ল্যাটকে ছিমছাম ও পরিপাটি একটি আউটলুক দিন।

বাড়তি সংরক্ষণের জায়গা যোগ করুন

ক্রেতারা বাড়তি সংরক্ষণের জায়গা দেখে প্রচণ্ড আনন্দিত হয়ে উঠেন। আপনি ফ্ল্যাটের অনেক স্থানেই বাড়তি সংরক্ষণের জায়গা তৈরি করতে পারেন। দেয়ালের ওপরে একটি র‍্যাক বানিয়ে নিতে পারেন। বাথরুমের ওপরে সাধারণত একটা ছোট ঘরের মত জায়গা থাকেই কম বেশি। কিন্তু, আপনি বাথরুমের ভেতরে শেলফ তৈরি করতে পারেন, এতে করে আপনার বাথরুম যেমন আধুনিক হবে তেমনি মূল্য বৃদ্ধি করবে অনেকাংশে। কিচেন ক্যাবিনেট যোগ করে রান্নাঘরকে করে তুলতে পারেন কার্যকরী এবং আকর্ষণীয়।

প্রতিটি রুম সাজিয়ে রাখুন

এখনকার সময়ের কথা বিবেচনা করে ক্রেতা কেমন ডেকোরেশন পছন্দ করবেন, সেই ধারণা থেকে ভেবে প্রতিটি রুম সাজিয়ে নিন। পরিবারের প্রেক্ষাপট থেকে বাচ্চাদের রুম, গেস্ট রুম ও ড্রয়িং রুম একটু আধুনিকভাবে সাজিয়ে নিতে পারেন। এই উপায়টি সব সময়ই ক্রেতা আকর্ষণ করে বেশি।

বাড়তি বসার ব্যবস্থা যোগ করুন

আপনার বাসায় বসার কোন বাড়তি জায়গা রয়েছে, তা ফ্ল্যাটের মূল্য এক ধাপ বাড়িয়ে দিতে পারে। যেমন, ধরুন বারান্দায় আপনি দুজনের বসার মত বেঞ্চ বানিয়ে নিলেন, এটা যেমন নান্দনিক হবে তেমনি উপকারীও। ফ্ল্যাট ক্রেতার জন্য এটা খুব আকর্ষণীয় একটি উপাদান হিসেবে বিবেচিত হবে।

বাসা রঙ করুন

মাষ্টার বেডরুম, ড্রয়িং রুম এবং রান্নাঘর এই তিনটি জায়গা একটি বাসার প্রধান অংশ হিসেবে বিবেচিত হয়। এই তিনটি ঘর নিউট্রাল রঙে রাঙিয়ে দিতে পারেন, যাতে করে দেয়ালের রঙে সজীবতা বজায় থাকে। বাসায়ও আসবে সজীব একটা আউটলুক। নতুন রঙ ব্যবহারের মাধ্যমে ফ্ল্যাটের মূল্য বৃদ্ধি করুন দিগুণ।

আধুনিক আলোর ব্যবস্থা করুন

আগের আলোর নকশা থেকে বেড়িয়ে আসতে হবে। আধুনিক মৃদু আলো কিংবা সাদা আলোর ফিউশন করতে পারেন এটা আপনার বাসাকে নতুন আঙ্গিকে এনে দিবে। আপনি চাইলে বাসার একেক কর্নার হয়ে উঠবে একেক রকম বৈচিত্র্যময়।

মেঝে মেরামত করুন

ফ্ল্যাটের মূল্য বৃদ্ধির কার্যকরি পন্থা হচ্ছে, বাসার মেঝে মেরামত করে করা। আপনি চাইলে ফ্ল্যাটের মেঝেটি উডেন করে ফেলতে পারেন কিংবা বাজেট অনুযায়ী সুন্দর কোন কার্পেট ব্যবহার করতে পারেন। অথবা, মেঝের মেরামত বা পরিষ্কার করিয়ে নিতে পারেন কোন পেশাদার ক্লিনার দিয়ে। যার ফলে, বাসার মেঝে হয়ে উঠবে একদম নতুনের মত।

করিডোরে আয়না ব্যবহার করুন

ছোট পরিসরে আয়না ব্যবহার করা সবচেয়ে চতুর পন্থা। সেই জন্য বাসার করিডোরে আয়না ব্যবহারের ফলে ঘরের আউটলুক অনেক বড় হয়ে আসবে। যা আপনার বাসাকে খোলামেলা আউটলুক এনে দিবে।

বাথরুম মেরামত করুন

আপনার বাসার বাথরুম যদি আগের নকশায় হয়ে থাকে তাহলে, আপনি কাউন্টার টপ পরিবর্তন করে, আয়নার ওপরে লাইট লাগিয়ে কিংবা বাথরুমে ক্যাবিনেট যোগ করে আনতে পারেন নতুন মাত্রা। আর যদি বাথরুমটি আধুনিক নকশায় থেকে থাকে তাহলে, কিছু শোপিজ বা ছোট গাছ ব্যবহার করে বাথরুমকে সাজিয়ে নিতে পারেন।

রান্নাঘর মেরামত করুন

আপনি চাইলে পাথরের কাউন্টার টপ যোগ করতে পারেন, এটি খুব নান্দনিক একটা আউটলুক এনে দিবে। আর যদি আর্থিক সীমাবদ্ধতা থেকে থাকে তাহলে, আপনি ক্যাবিনেট কিংবা সেলফ নতুন করে লাগিয়ে নিতে পারেন। এক্ষেত্রে খরচও কমবে এবং রান্নাঘর হয়ে উঠবে নতুনের মত।

ওপরের এই ১০টি উপায়ে ফ্ল্যাটের মূল্য বৃদ্ধি করুন অনায়াসে। কেবল মূল্য বৃদ্ধি নয় এই দশটি উপায়ে খুব সহজেই আপনার ফ্ল্যাটকে দিতে পারেন নতুন একটি আউটলুক। যদি কোন প্রয়োজনীয় পয়েন্ট লিখে না থাকি, কমেন্টে জানাতে ভুলবেন না। এবং এ আর্টিকেলটি আপনার ফ্ল্যাটের মূল্য বৃদ্ধি করতে কতটা সাহায্য করেছে অবশ্যই তা জানাবেন।