সিআরবি হলো প্রাকৃতিকগত ভাবে আল্লাহর অকৃত্রিম দান

জাহাঙ্গীর আলম চট্টগ্রাম

কালাচারাল অ্যান্ড হেরিটেজ ঘোষিত চট্টগ্রামের সিআরবি’র প্রাণ-প্রকৃতি ধ্বংস করে হাসপাতাল নির্মাণের প্রক্রিয়া প্রত্যাহার না করা পর্যন্ত আন্দোলন চালিয়ে যাওয়ার ঘোষণা দিয়েছেন নেতৃবৃন্দ।

বৃহস্পতিবার (৯ সেপ্টেম্বর) বিকেলে সিআরবি রক্ষায় আন্দোলনকারী সংগঠন চট্টগ্রাম নাগরিক সমাজ, সমাবেশে বক্তারা এ ঘোষণা দেন।

চট্টগ্রাম নাগরিক কমিটির সদস্য সচিব ইব্রাহিম হোসেন চৌধুরী বাবুল বলেন, চট্টগ্রাম উন্নয়ন কর্তৃপক্ষ ২০০৮ সালে ডিটেইলড এরিয়া প্ল্যান চূড়ান্ত পূর্বক ডিসেম্বরে প্রজ্ঞাপন জারি করে। তারই ধারাবাহিকতায় মহামান্য রাষ্ট্রপতির আদেশক্রমে বাংলাদেশ গেজেটভুক্ত প্রজ্ঞাপনে চট্টগ্রাম উন্নয়ন কর্তৃপক্ষ-চউক প্রণিত ডিটেইল এরিয়া প্ল্যানে সিআরবিকে কালচারাল হেরিটেজ হিসেবে ঘোষণা করা হয়।

সিআরবিকে প্রোটেকটেড এরিয়া হিসেবে সংরক্ষনের নির্দেশ দেয়া হয়। সেই হিসেবে সিআরবিতে কর্মাশিয়াল ব্যবহারের জন্য অনুমতি দেয়া যাবে না।

সিআরবিতে বেসরকারি ব্যবস্থাপনা বাণিজ্যিক স্থাপনা নির্মাণ সংবিধান পরিপন্থী কাজের শামিল। হেরিটেজ হিসেবে গেজেটভুক্ত হওয়া সিআরবিতে সাংস্কৃতিক ঐতিহ্য পরিবর্তন করে এই ধরনের স্থাপনা নির্মাণ সাংবিধানিক আইন লংঘন করার শামিল, যা আইনত দন্ডনীয় অপরাধ।

সিআরবিতে হাসপাতাল নির্মাণের বিরুদ্ধে চলমান আন্দোলনের চূড়ান্ত লক্ষ্য না হওয়া পর্যন্ত এই লড়াই-আন্দোলন চলবে।

চট্টগ্রামের সন্তান ও বাংলাদেশ আওয়ামী যুবলীগের কেন্দ্রীয় সাবেক উপ অর্থ সম্পাদক হেলাল আকবর চৌধুরী বাবর বলেন, বাইরে যথন গরমের তাপমাত্রা ৪৫ ডিগ্রি থাকে-তখন এই সিআরবিতে তাপমাত্রা থাকে ৪০ ডিগ্রির কম। সিআরবি হলো প্রাকৃতিকগত ভাবে আল্লাহর অকৃত্রিম দান। হাজার কোটি টাকা দিলেও এরকম একটি সিআরবি বানানো যাবেনা। আমরা মাননীয় প্রধানমন্ত্রীর কাছে সিআরবি ভিক্ষা চাচ্ছি। আমরা হাসপাতাল চাই-তবে এই হাসপাতাল সিআরবি থেকে দূরে হোক।

ছাত্রলীগ নেতা মাহমুমুদুল করিম’র সঞ্চালনায় সমাবেশে বক্তব্য রাখেন অধ্যাপক হোসাইন কবির, বিএফইউজে’র যুগ্ম মহাসচিব মহসীন কাজী, যুগ্ম সদস্যসচিব রাশেদ হাসান, স্বপন মজুমদার, আওযামী লীগ নেতা হাসান মনসুর, আবৃত্তিকার প্রনব চৌধুরী, অ্যাডভোকেট রাশেদুল আলম রাশেদ, আফম মোদাচ্চের আলী, সাবেক ছাত্রনেতা শিবু প্রসাদ চৌধুরী, সাবেক ছাত্রনেতা নুরুল আজিম রনি, নারী নেত্রী হাসিনা আক্তার টুনু, গাজী জসিম উদ্দিন, মিনু মিত্র, রেজাউল আলম রিজন, এমআর হৃদয়, হোসেইন আহমেদ, রুবেল,ইকবাল কায়সার, জাহেদ হোসেন সাইমুন, আনোয়ার হোসেন পলাশ, মাইমুন উদ্দিন মামুন, রুপম সরকার, বিপু ঘোষ, অনিক, সোহেল,সুজন, জামসেদ।