সাকিব-মাহমুদউল্লাহর মধ্যে দ্বন্দ্ব সৃষ্টিকারীকে শনাক্ত করবে বিসিবি

বিশ্বকাপে ইংল্যান্ডের বিরুদ্ধে বড় স্কোর তাড়া করতে গিয়ে মাহমুদউল্লাহ রিয়াদের ধীরগতির ব্যাটিংয়ের কারণে ক্ষেপেছিলেন ওই ম্যাচে সেঞ্চুরি করা সাকিব আল হাসান। এই কারণে পরবর্তি ম্যাচে তাকে বাদ দিতে মাশরাফিকে বলেছিলেন এ অলরাউন্ডার। সম্প্রতি এমন কথাই সংবাদমাধ্যমগুলোতে ছড়িয়ে পড়েছে। তবে কে বা কারা ড্রেসিংরুমে কথা বাইরে জানিয়েছে তাদের শনাক্ত করে ব্যবস্থা নেবে বাংলাদেশ ক্রিকেট বোর্ড (বিসিবি)।

বাংলাদেশ ক্রিকেট দল শ্রীলঙ্কা সফরে থাকাকালীন ক্রিকেটভিত্তিক জনপ্রিয় সংবাদমাধ্যম ক্রিকবাজ সাকিব ও রিয়াদের মধ্যকার দ্বন্দ্বের খবর প্রকাশ করে। তারপর বাংলাদেশের কিছু সংবাদমাধ্যমও ঘটনার বিবরণ জানায়।

তবে এই খবর সাকিব বা রিয়াদ কেউই সাংবাদিকদের বলেননি। তাহলে টাইগারদের সাজঘরের এই ঘটনা বাইরে গেল কীভাবে! তাদের কোনো সতীর্থ হয়ত তা ফাঁস করেছেন।

বিসিবির মিডিয়া ম্যানেজার জালাল ইউনুস বাংলাদেশের বেসরকারি টিভি চ্যানেল একাত্তরে সাথে সাক্ষাৎকালে বলেন, ড্রেসিংরুমের কথা বাইররে ফাঁসকারীদের খুঁজে বের করে ডিসিপি নারি আইনানুযায়ী শাস্তি কিংবা তিরস্কার করবে বোর্ড। তিনি আরো মন্তব্য করেন, খেলোয়াড়দের মধ্যে মতের অমিল হতেই পারে কিন্তু সেটা বাইরে আসা উচিত নয়।

জালাল ইউনুসের ভাষায়, ‘এটা তো শৃঙ্খলা বহির্ভ‚ত কাজ। এগুলো বাইরে ছড়ানো বা নিজেদের মধ্যের কথাবার্তা বাইরে আলোচনা করা বৈধ নয়। সাধারণত ড্রেসিং রুমে এরকম কিছু হয় না। কিন্তু আপনি জানেন, হাতের পাঁচটা আঙুল তো সমান না। হয়ত কিছু একটা কথা হতে পারে। এগুলো এড়িয়ে গেলেই ভালো।’

তিনি আরো যোগ করেন, ‘এরকম ছোট ছোট মতানৈক্য সবদলের মধ্যেই থাকে। কিন্তু এগুলো বাইরে আসা উচিত না। দেখা যাচ্ছে, তাদের মধ্যে হালকা কিছু কথা আছে কিন্তু সেগুলোকে বড় করে বানিয়ে প্রচার করা হচ্ছে। এগুলো করলে কিন্তু দলের ক্ষতি হয়।’