যে ৫ উপকারিতা আছে এলাচে

এলাচ এমন একটি উপাদান যা কিনা যে কোনো খাবারের স্বাদকে সমৃদ্ধি করে। এর ব্যবহার কেবল রান্নাতেই সীমাবদ্ধ নয়। এলাচের পেস্ট, এলাচ গুঁড়ো, এলাচের তেল এবং এলাচের চা বাজারে সচরাচর পাওয়া যায় এখন। এটি একপ্রকার মশলা। এলাচে রয়েছে নানা ওষুধই গুণাবলী এবং স্বাস্থ্য উপকারিতা। বহু বছর ধরে ঐতিহ্যবাহী মশলা ও সুস্বাদু উপাদান হিসেবে ব্যবহার হয়ে আসছে এলাচ। এবার তাহলে

এলাচের উপকারিতা সম্পর্কে জেনে নেওয়া যাক-
শ্বাসকষ্ট : মধু, লেবুর রস ও গরম পানির সঙ্গে একটা এলাচ মিশিয়ে পান করলে শ্বাসকষ্ট দূর হয়। হুপিংকাশি ও ফুসফুস সংক্রমণের মতো যারা সমস্যায় ভুগছেন তারা নিয়মিত এই উপায়ে এলাচ-পানি খেতে পারেন। ক’দিন পর নিজেই উপকারিতা বুঝতে পারবেন।
হাঁপানি ও হৃদরোগ : এলাচে থাকা উপাদান হাঁপানি ও হৃদরোগ নিরাময়ে অত্যন্ত গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকা পালন করে। নিয়মিত এলাচ খাওয়ার ফলে হৃদরোগ প্রতিরোধ হয় এবং হৃদস্পন্দন স্বাভাবিক থাকে। এতে করে রক্তচাপ নিয়ন্ত্রণে থাকে। এলাচের গুঁড়োর সঙ্গে মধু মিশিয়ে নিয়মিত খেলে হৃদরোগে বেশ উপকার আসে।
মুখের দুর্গন্ধ : মুখে দুর্গন্ধ থাকা বিব্রতকর একটা সমস্যা। অনেকের মুখেই কারণবশত দুর্গন্ধ থাকে। মুখ ভালোভাবে পরিষ্কার করার পরও দুর্গন্ধ থেকে যায়। যারা এরকম সমস্যায় ভুগেন তারা একটা এলাচ নিয়ে চিবোতে থাকুন। মুহূর্তেই মুখের দুর্গন্ধ দূর হয়ে যাবে।
মাথা ব্যথা : এলাচ চা মাথা ব্যথা দূর করতে অনেক সহায়ক। গরম পানিতে এলাচ গুঁড়ো ও মধু দিয়ে ফুটিয়ে পান করার ফলে মাথা ব্যথা কমতে শুরু করে। মাথা ব্যথা দূর করা ছাড়াও এলাচ চা মানসিক চাপ কমাতে সহায়ক ভূমিকা পালন করে।
উদ্বেগ : এক গবেষণায় দেখা গিয়েছে এলাচের নির্যাস উদ্বেগজনক আচরণ রোধ করতে পারে। নিয়মিত এলাচের নির্যাস পানীয়ের ফলে মানসিক উদ্বেগ অনেকটাই কমে যায়। এ ক্ষেত্রে চিকিৎসকের পরামর্শ মেনে চলতে হবে।
সূত্র : হেলথ লাইন