যে কারণে বার্সা ছাড়তে হলো মেসির

লিওনেল মেসি বার্সেলোনা ছেড়েছেন, বাক্যটা এখনো বিশ্বাস করতে পারছেন না অনেকেই। আর বিশ্বাস করারও তো কথা না। যে ক্লাবে শৈশব থেকে বেড়ে উঠেছেন মেসি। সেই ক্লাব ছাড়বেনও বা কেনই। মেসি পুরোপুরিভাবে বার্সেলোনায় থাকতে চেয়েছিলেন। যার কারণে ক্লাবের আর্থিক সমস্যার কথা ভেবে অর্ধেক বেতনেও খেলতে রাজি হয়েছিলেন। কিন্তু তার আর হলো কই? প্রাণের ক্লাব ছেড়েই যেতে হলো এলএমটেনের।

কয়েক সপ্তাহ আগেই ফ্রি-এজেন্ট হয়ে যান মেসি। টানা বিশ বছরে এটিই প্রথম। এরপর চুক্তি নবায়ন নিয়ে দু’পক্ষে আলোচনা চলতেই থাকে। একটা সময় এসে জানা যায় চুক্তি নবায়নের খুবই নিকটে মেসি। সেই হিসেবে বৃহস্পতিবার রাতে পাঁচ বছরের চুক্তি নবায়নের খবরের জন্য প্রস্তুত ছিল বিশ্বের বিভিন্ন প্রান্তের ফুটবল ভক্তরা। কিন্তু হলো তার উল্টো। সবাইকে হতাশ করে বার্সেলোনা জানালো, মেসি আর বার্সায় থাকছেন না।

বার্সেলোনার টুইটটা বার বার পড়েছেন অনেকেই। তাদের মনে হচ্ছিল টুইটটা ভুল হয়েছে। কিন্তু না, খানিক পরই নিজেদের ওয়েবসাইটে দেওয়া এক বিবৃতিতেও একই কথা জানায় স্প্যানিশ জায়ান্টরা।

অর্ধেক বেতনে খেলতে রাজি হওয়া মেসির কেন বার্সা ছাড়তেই হলো? এমন প্রশ্নের সহজ জবাব মিলে লা লিগার নিয়মকানুনের জটিলতার দিকে তাকালে। লা লিগার কিছু আইন-কানুন আছেন। দুই পক্ষ চুক্তি করার ব্যাপারে পুরোপুরি রাজি থাকলেও শেষ পর্যন্ত চুক্তিটি হয়নি লিগ কর্তৃপক্ষের আর্থিক আইন-কানুনের কারণেই।

লা লিগার নিয়ম অনুযায়ী, খেলোয়াড়দের বেতনের জন্য প্রতিটি ক্লাব একটি নির্দিষ্ট সীমার বেশি খরচ করতে পারে না। স্প্যানিশ লিগের আরোপ করা বেতনের সীমার মধ্যে বার্সেলোনার বেতনের বিল আগে থেকেই ছিল না। এর মধ্যে মেসির চুক্তি নবায়ন করতে কাতালনদের অসম্ভবকে সম্ভব করতে হতো। এতদিন শোনা গিয়েছিল, বার্সা সে লক্ষ্যে চেষ্টা চালিয়ে যাচ্ছে। কিন্তু অনেক চেষ্টার পরও সফল হলো না।

শেষ পর্যন্ত বার্সেলোনার আর্থিক জটিলতা ও লা লিগার নিয়ম কানুনই ইতি টানলো বার্সা-মেসির সম্পর্কের। বিশ বছর পর ছাড়াছাড়িই হয়ে গেল লিওনেল মেসি আর বার্সেলোনা। বার্সা ছাড়ার পর কোন ক্লাবে যোগ দিচ্ছেন মেসি? এটি এখন কোটি টাকার প্রশ্ন। মেসির সম্ভাব্য গন্তব্য পিএসজি কিংবা ম্যানচেস্টার সিটি।