মাওয়া ঘাটে বিশ্বমানের রেস্টুরেন্ট “Project Hilsa”

এনামুল হাসানঃ দেশের সনামধন্য রপ্তানি মুখি গার্মেন্টস শিল্প ‘এভার গ্রুপ’ শিমুলিয়া ঘাটের ৫’শ মিটার আগে তৈরী করেছে বিশ্বমানের রেস্টুরেন্ট “প্রজেক্ট হিলসা”। এই রেস্টুরেন্ট তৈরী করা হয়েছে ইলিশের আকৃতিতে তাই বাইরে থেকে দেখতে ইলিশের মতো।

গত ২৭ মে আনুষ্ঠানিক ভাবে উদ্বোধন করা হয়েছে এই রেস্টুরেন্টটি। প্রতিদিন বেলা ১২টা থেকে রাত ১১টা পর্যন্ত খোলা থাকবে সপ্তাহের প্রত্যেক দিন। অনেকেই দাবি করছেন প্রজেক্ট হিলসা বাংলাদেশের সবচেয়ে বড় রেস্টুরেন্ট। বিশ্বমানের এই রেস্টুরেন্ট সম্পর্কে জানতে চাইলে “প্রজেক্ট হিলসার” ম্যানেজার ইনচার্জ প্রসনজিৎ রায় দৈনিক আমার সময়কে বলেন, আমদের এই রেস্টুরেন্টটি বিশ্বমানের তাতে কোনো সন্দেহ নেই। এখানে একসাথে ৩’শ প্লাস মানুষ বসে খেতে পারবে। কাস্টমার সার্ভিসের জন্য আমাদের স্টাফ রয়েছে ৮০জন প্লাস। রয়েছে ফ্রী গাড়ি পার্কিং-এর সুব্যবস্থা। আপাতত আমরা বেলা ১২টা থেকে রাত ১১টা পর্যন্ত সার্ভিস চালু রেখেছি। তবে সামনে আমাদের প্লানিং রয়েছে ওভার নাইট করার। কেননা ঢাকা থেকে বহু মানুষ রাতের বেলা ইলিশ খেতে মাওয়া ঘাটে আসেন। ইলিশ ছাড়া আর কি কি খাবার এখানে পাওয়া যায় এমন প্রশ্নে তিনি বলেন, ইলিশের আইটেম ছাড়াও আমাদের এখানে রয়েছে ইন্ডিয়ান, থাই আন্ড চাইনিজ ও কন্টিনেন্টাল ফুড। যা অন্যান্য সব রেস্টুরেন্ট থেকে ভালো করার চেষ্টা করেছি আমরা।

খাবারের দাম কেমন? উত্তরে তিনি বলেন, বাইরে থেকে দেখে অনেকই ভাববে এখানে খাবারের দাম অনেক বেশি। বাস্তবে মোটেও তা না। আমাদের খাবারের দাম রিজনেবল। মাওয়া ঘাটে অন্যান্য হোটেলে যেমন দামে সবাই খায় আমাদেরও সেই রকম। আমাদের এখানে ১৫’শ থেকে ১৮’শ টাকায় ইলিশ রয়েছে। আর এই দামের মধ্যেই আমরা ভেজে দিচ্ছি বা ভর্তা করে দিচ্ছি। যা বাইরেও একি রকম। তাই দামের কথা না ভেবে পরিবার পরিজন নিয়ে চলে আসুন প্রোজেক্ট হিলসায়। আর চাইলে আমাদের আগে থেকেও কল করে বুকিং দিতে পারেন এ জন্য কোনো পে করতে হবে না। তবে নির্দিষ্ট সময়ের চাইতে সর্বোচ্চ আধা ঘণ্টা আমরা ওয়েট করবো। আধা ঘণ্টা অতিবাহিত হলে আপনার বুকিং ক্যানসেল করে দেয়া হবে।

শুক্রবার সরেজমিনে দেখা যায়, বিকেলে রেস্টুরেন্টের মেইন গেটে ফুল হাউস লেখা ঝুলিয়ে দেয়া রয়েছে। কাস্টমারের প্রচন্ড রকম ভীরে সে সময় অনেকেই ভেতরে প্রবেশের জন্য বাইরে অপেক্ষা করছিলেন। অপেক্ষারত অনেকেই সুন্দর এই রেস্টুরেন্টের সামনে পরিবার পরিজন নিয়ে ফটোসেশনে ব্যস্ত ছিলেন।

যেভাবে যাবেনঃ ঢাকার মিরপুর ১০, ফার্মগেট, শাহবাগ থেকে রয়েছে স্বাধীন পরিবহন। এ ছাড়া ঢাকার গুলিস্তান থেকে সারাদিনই পাবেন মাওয়া যাওয়ার বাস ইলিশ, গাঙচিল, বিআরটিসির এসি বাস। যাত্রাবাড়ী থেকেও বাস যোগে আসতে পারবেন।