ভোলায় সরকারি বিধিনিষেধ না মানায় ৯৮ জনকে জরিমানা করেছেন ভ্রাম্যমাণ আদালত

খলিল উদ্দিন ফরিদ। ভোলা জেলা প্রতিনিধিঃ

কঠোর বিধি-নিষেধের তৃতীয় দিনে ভোলায় স্বাস্থ্যবিধি অমান্য করায় ৯৮ জনের ৮৩ হাজার ৫০০ টাকা জরিমানা করেছেন ভ্রাম্যমাণ আদালত। রোববার (২৩ জুলাই) সকাল থেকে বিকেল পর্যন্ত জেলার ছয় উপজেলায় কঠোর বিধি-নিষেধ স্বাস্থ্যবিধি লঙ্ঘনের দায়ে এ জরিমানা করা হয়েছে। এর মধ্যে ভোলা সদরে ৩৭ জনকে ২১ হাজার ৯০০ টাকা, দৌলতখানে ২ জনকে ৮১৫ হাজার, লালমোহনে ১০ জনকে ৬ হাজার ৪০০ টাকা, চরফ্যাশনে ১৫ জনকে ২৯ হাজার ৪০০ টাকা জরিমানা করা হয়। ভোলা জেলা প্রশাসনের সহকারী কমিশনার ও এক্সিকিউটিভ ম্যাজিস্ট্রেট আকিব ওসমান এ তথ্য নিশ্চিত করেছেন। তিনি বলেন, ছয় উপজেলায় আটটি ভ্রাম্যমাণ আদালত পরিচালনা করে ৮৭ মামলায় ৯৮ জনের জরিমানা করা হয়।  তিনি আরও জানান, ০১ জুলাই থেকে এ পর্যন্ত জেলায় ২৫১টি ভ্রাম্যমাণ আদালতে দুই হাজার ছয় জনকে জরিমানা এবং ৩৬ জনকে বিভিন্ন মেয়াদে কারাদণ্ড দেওয়া হয়েছে।

এ সময় জরিমানা করা হয়েছে ১৬ লাখ ৯৩ হাজার ৩০০ টাকা। ভ্রাম্যমাণ আদালতের এ অভিযান অব্যাহত রয়েছে। এদিকে ভোলার দৌলৎখান উপজেলায় সরকারি নিষেধাজ্ঞা অমান্যে এবং স্বাস্থ্যবিধি না মেনে বৌভাতের আয়োজন করায় দুই বিয়ে বাড়িতে ১৫ হাজার টাকা জরিমানা আদায় করেছে ভ্রাম্যমান আদালত।
২৫ জুলাই দুপুরে উপজেলার সৈয়দপুর ইউনিয়নের তালুকদার বাড়ি এবং পৌরসভার একটি বৌভাত অনুষ্ঠানে ভ্রম্যমান আদালত এ জড়িমানা আদায় করেন।বিষয়টি নিশ্চিত করেছে উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা ও ভ্রাম্যমান আদালতের নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট মোঃ তারেক হাওলাদার। তিনি বলেন করোনাকালে সরকারি নিষেধাজ্ঞা অমান্যে এবং স্বাস্থ্যবিধি না মানায় এ জড়িমানা আদায় করা হয়েছে।এছাড়া করোনা কালিন সময়ে স্বাস্থ্যবিধি মেনে সামাজিক অনুষ্ঠান আয়োজনের অনুরোধ জানান তিনি।