দৌলতদিয়া  নৌরুটে দ্বিমুখী  যাত্রীর চাপ। 

মোঃ সিরাজুল ইসলাম। গোয়ালন্দ (রাজবাড়ী) প্রতিনিধি।
রাজবাড়ী জেলার দৌলতদিয়া ফেরিঘাটে আজ দ্বিমুখী যাত্রীর চাপ রয়েছে।  পবিত্র ঈদ উল আযহার কারণে টানা আট দিন ছুটির  পর আগামী কাল (২৩ জুলাই মঙ্গলবার)  সকাল ৬টা থেকে  কঠোর বিধিনিষেধের কথা ঘোষনা করেছে সরকার। এরই মধ্যে ঈদের ছুটি কাঁটিয়ে অনেকে কর্মমুখি হচ্ছে। আবার অনেকে লকডাউনে কর্ম না থাকার কারণে ঘরমুখি হচ্ছে। উভয় কারণে ফেরি ঘাটে কর্মমুখি-ঘরমুখি যাত্রীদের উপচে পরা ভিড় রয়েছে। চাপ রয়েছে গণপরিবহন ও ব্যক্তিগত যানবাহনের। বৃহস্পতিবার সকালে দৌলতদিয়া ফেরি ঘাট এলাকা সরেজমিনে ঘুরে ও ঘাট সংশ্লিষ্টদের সাথে কথা বলে এমনি চিত্র দেখা ও জানা গেছে।
বিআইডব্লিউটিসি অফিস সূত্রে জানা যায়, এই নৌরুটে ছোট বড় মিলিয়ে ১৪টি ফেরি চলাচল করছে। দৌলতদিয়া পারে ৭টি ফেরি ঘাটের মধ্যে ৪টি ঘাট সচল রয়েছে। বাকি ৩টি ঘাট অকেজো হয়ে পরে আছে। এই নৌরুটে বর্তমান ১৭টি লঞ্চ চলাচল করছে। ঘাট ঘুরে দেখা যায়, সকালের  দিকে দৌলতদিয়া ফেরি ঘাট ফাঁকা থাকলেও সকাল ১০টার পর থেকে যাত্রী ও গণপরিবহন এবং ব্যক্তিগত যানবাহনের চাপ সৃষ্টি হয়। এ সকল ব্যক্তিগত যানবাহন ও যাত্রীরা ঢাকা থেকে যে পরিমান আসছে ঠিক সেই পরিমান ঢাকার দিকে যাচ্ছে। এতে উভয় ফেরি ঘাটে দীর্ঘ যানজটের সৃষ্টি হয়।
এ সময় সামাজিক দুরত্ব বজায় না রেখে বরং গাদাগাদি করে চলাচল করছে সবাই। জীবনের ঝুঁকি নিয়ে অনেকে ফেরিতে উঠা-নামা করছে। ৩ মাসের এক শিশু বাচ্চা কোলে নিয়ে এক নারী ঢাকায় থেকে আসছে। তার সাথে কথা হলে তিনি বলেন, ঢাকায় সব কিছু বন্ধ থাকবে। যে কারণে বাড়িতে চলে যাচ্ছি। কারণ ঢাকায় থাকলে আয় না করলে খাবো কি? বাধ্য হয়ে বাড়িতে চলে যাচ্ছি। মাগুরা থেকে ঢাকাগামী রহমান নামের এক যাত্রী বলেন, পরিবারের সবাই ঢাকায় আছে। ঈদে কোরমানি দেওয়ার জন্য আমি গ্রামের বাড়িতে এসেছিলাম। টানা লকডাউনের কথা শুনে আজই ঢাকা চলে যাচ্ছি। তিনি বলেন, কাজ না থাকলেও পরিবারের সকলের সাথে থাকতে পারব। রাজবাড়ী পাংশা থেকে ঢাকা গামী বেলায়েত হোসেন নামের এক ব্যক্তি বলেন, আসা-যাওয়ার মধ্যে আছি। ঈদের আগে কস্ট করে আসতে হলো আবার চলেও যেতে হচ্ছে। আগামীকাল লকডাউনের কথা শুনেছি। লকডাউন হলে যাবো কিভাবে? যে কারণে আজ চলে যেতে হচ্ছে।
দৌলতদিয়া লঞ্চ ঘাটের ম্যানেজার নুরুল আনোয়ার মিলন জানান, আরিচা পোর্ট অফিসারের নির্দেশের বাইরে আমরা যাচ্ছি না। প্রতিটি লঞ্চ অর্ধেক যাত্রী নিয়ে ঘাট থেকে ছেড়ে যাচ্ছে এবং আসছে। বিআইডব্লিউটিসি দৌলতদিয়া ঘাট শাখার ব্যবস্থাপক (বাণিজ্য) মো. শিহাব উদ্দিন জানান, আগামী কাল থেকে কঠোর লকডাউন শুরু হবে। যে কারণে অনেকে ঢাকামুখি এবং ঘরমুখি হচ্ছে। এতে দৌলতদিয়া ফেরি ঘাটে যানবাহন ও যাত্রীদের উপচে পরা ভিড় রয়েছে। এই নৌরুটে বর্তমান ১৪টি ছোট বড় ফেরি চলাচল স্বাভাবিক রয়েছে।