ঢাবিতে ভর্তিযুদ্ধ শুরু

ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ে (ঢাবি) ২০১৯-২০২০ শিক্ষাবর্ষে প্রথম বর্ষের (সম্মান) ভর্তি পরীক্ষা শুরু হয়েছে।

শুক্রবার (১৩ সেপ্টেম্বর) ব্যবসায় শিক্ষা অনুষদভুক্ত ‘গ’ ইউনিটের ভর্তি পরীক্ষার মধ্য দিয়ে এ প্রতিযোগিতা শুরু হয়। সকাল ১০টা থেকে বেলা সাড়ে ১১টা পর্যন্ত ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয় ক্যাম্পাসের ৫৬টি কেন্দ্রে একযোগে এ পরীক্ষা অনুষ্ঠিত হয়। গত দুই বছর প্রশ্নফাঁস ও ভর্তি জালিয়াতির অভিযোগ উঠায় এবার সর্বোচ্চ সতর্কতা অবলম্বন করছে বিশ্ববিদ্যালয় কর্তৃপক্ষ।

বিশ্ববিদ্যালয় প্রশাসন জানিয়েছে, অন্য বছরের তুলনায় এবার অনিয়ম ঠেকাতে বেশ সতর্ক অবস্থানে রয়েছে কর্তৃপক্ষ। ভর্তি পরীক্ষায় প্রশ্নের ধরন পরিবর্তন, আইনশৃঙ্খলা বাহিনীর সদস্যদের সংখ্যা বাড়ানো, কেন্দ্রের মধ্যে পরীক্ষার্থী ছাড়া অন্যদের প্রবেশে নিষেধাজ্ঞা জারি ইত্যাদি পদক্ষেপ নেয়া হয়েছে।

বিশ্ববিদ্যালয়ের প্রক্টর অধ্যাপক ড.এ কে এম গোলাম রব্বানী বলেন, কঠোর নিরাপত্তার মধ্যে আমরা ভর্তি পরীক্ষা শুরু করেছি। প্রক্টরিয়াল বডি, মোবাইল টিম, আইনশৃঙ্খলা বাহিনী, বিএনসিসিসহ সবাই সমন্বিতভাবে কাজ করছে।

৭৫ নম্বরের নৈর্ব্যক্তিক ও ৪৫ নম্বরের লিখিত পদ্ধতির মাধ্যমে এবার ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ে নতুন নিয়মে ভর্তি পরীক্ষা অনুষ্ঠিত হচ্ছে। ৯০ মিনিটের পরীক্ষায় নৈর্ব্যক্তিকের জন্য ৫০ মিনিট এবং লিখিত পরীক্ষার জন্য সময় থাকবে ৪০ মিনিট।

প্রতিটি নৈর্ব্যক্তিকের জন্য ১.২৫ নম্বর বরাদ্দ থাকবে। প্রতিটি ভুল উত্তরের জন্য কাটা যাবে ০.২৫ নম্বর। লিখিত অংশে প্রশ্নের মান ২ থেকে ৫-এর মধ্যে হবে। পরীক্ষায় পাস করতে হলে প্রার্থীকে নৈর্ব্যক্তিক অংশে ৩০ এবং লিখিত অংশে ১২ নম্বরসহ মোট ৪৮ নম্বর পেতে হবে। বিষয়ভিত্তিকভাবেও পরীক্ষার্থীদের পাস করতে হবে।

এ বছর ‘গ’ ইউনিটে ১২৫০ আসনের বিপরীতে ভর্তিচ্ছু আবেদনকারীর সংখ্যা ২৯ হাজার ৫৮ জন। আসন প্রতি লড়ছেন ২৩ ভর্তিচ্ছু।