ডুয়েট মেধাবী শিক্ষার্থী হাবীব কে বাঁচাতে সকলকে এগিয়ে আসার আহ্বান

গোলাম রাব্বী আকন্দ, মহানগর প্রতিনিধি গাজীপুর:

ঢাকা প্রকৌশল ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয়ের (ডুয়েট) যন্ত্র প্রকৌশল অনুষদে প্রথম হয়েছেন আহসান হাবীব। তাঁর এমন সফলতায় যেখানে পরিবারে আনন্দে আত্মহারা হওয়ার কথা,নেমে এসেছে সেখানে ঘোর অন্ধকার । তাঁর বাবা মাদ্রাসার শিক্ষক গত দুই দিন হলো জানতে পেরেছেন একমাত্র ছেলের দুটো কিডনিই নষ্ট হয়ে গেছে। চিকিৎসকের পরামর্শ অনুযায়ী অপারেশন করে দ্রæত কিডনি প্রতিস্থাপন করা না গেলে বাঁচানো সম্ভব হবে না তাঁর একমাত্র সন্তান ঢাকা প্রকৌশল ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয়ের উজ্জ্বল নক্ষত্র আহসান হাবীবকে। আহসান হাবীবে’র স্বপ্ন ছিল ডুয়েট এ শিক্ষকতা করবে। আহসান হাবীব এর বাবা সিরাজুল ইসলাম ঠাকুরগাঁয়ের বালিয়াডাঙ্গী উপজেলার বড় পলাশবাড়ী ইসলামিক আলিম মাদ্রাসায় কর্মরত সহকারী শিক্ষক হিসেবে কর্মরত আছেন। সিরাজুল ইসলাম বলেন, গেল বছর আমার একমাত্র ছেলের হঠাৎ শারীরিক সমস্যা হলে ঠাকুরগাঁয়ের এক চিকিৎসকের থেকে চিকিৎসা নেওয়ার পর ছেলে সুস্থ হয়ে যায়। গত ১৭ দিন হলো ছেলে আবার অসুস্থ হলে দ্রæত ঢাকা নিয়ে আসি। ঢাকায় চিকিৎসককে দেখানোর পর জানতে পারি ছেলের দুটো কিডনিই অকেজো হয়ে গেছে। এখন নিয়মিত ডায়ালাইসিস করতে হচ্ছে। খুব দ্রæত ছেলের কিডনি প্রতিস্থান করতে হবে। এতে প্রায় ১৫ লক্ষাধিক টাকার প্রয়োজন। একমাত্র ছেলেকে পড়ালেখা করাতে গিয়ে ইতিমধ্যেই শূন্য হয়ে পড়েছি। আমার মেধাবী ছেলেকে বাঁচাতে আপনারা আমাকে সহযোগিতা করুন। আমি আমার ছেলেকে বাঁচাতে চাই। আহসান হাবীব বর্তমানে ঢাকার মিরপুর-২-এর কিডনি ফাউন্ডেশনে চিকিৎসাধীন আছে। তাঁর চিকিৎসার জন্য সহযোগিতা করতে চাইলে বাবা সিরাজুল ইসলামের বিকাশ/নগদ ০১৭০১৯০২৪২৪ নম্বরে সহযোগিতা করতে পারেন।