টেকনাফের শিক্ষিত ছেলে-মেয়েদের চাকরির অগ্রাধিকারের নির্দেশ : বর্জ্য পরিশোধন প্ল্যান্ট উদ্ভোধন কালে সিঃ সচিব হেলালুদ্দীন

দিদারুল আলম সিকদার, কক্সবাজার জেলা প্রতিনিধিঃ কক্সবাজারের সর্ব দক্ষিণের সীমান্ত জনপথ টেকনাফ পৌরসভার নিজস্ব ভবন নির্মাণ করা হবে। এই ভবনের জন্য সাবেক সাংসদ আবদুর রহমান বদি পৌরসভার ভবনের জন্য জমি দানের আশ্বস্ত করেছেন। এরপর সেটি বাস্তবায়নের রুপ নিবে। (১২ জুন) রাত ৮ টার দিকে টেকনাফ পৌরসভা কার্যালয়ে মেয়র হাজী মো. ইসলামের সভাপতিত্বে এক মতবিনিময় সভায় স্থানীয় সরকার বিভাগের সিনিয়র সচিব হেলালুদ্দীন আহমদ এসব কথা বলেন।
সাংবাদিকদের এক প্রশ্নের জবাবে সিনিয়র সচিব হেলালুদ্দীন আহমদ বলেন, পৌরসভাকে খাল দ্রুত দখল মুুক্ত করতে ব্যবস্থা নেওয়া হবে। এবং স্হানীয় শিক্ষিত ছেলে-মেয়েদের চাকরি অগ্রাধিকার দেওয়ার জন্য জেলা প্রশাসকে জানান এসময় পৌরসভায় নির্মিত পয়:বর্জ্য পরিশোধন প্ল্যান্ট প্রকল্প উদ্ভোধন করেন তিনি।
সভায় বক্তব্য রাখেন, কক্সবাজার জেলা প্রশাসক মো. মামুনুর রশিদ, সাবেক সাংসদ আব্দুর রহমান বদি, পৌর মেয়র হাজী মোহাম্মদ ইসলাম। এছাড়া জনস্বাস্থ্য প্রকৌশল অধিদপ্তরের নির্বাহী প্রকৌশলী ঋত্বিক চৌধুরী, উপজেলা পরিষদের মহিলা ভাইস চেয়ারম্যান- তাহেরা আক্তার মিলি, সাবরাং ইউনিয়ন পরিষদ চেয়ারম্যান নুর হোসেন, হ্নীলা ইউনিয়ন পরিষদ চেয়ারম্যান রাশেদ মাহমুদ আলী এবং পৌরসভার কর্মকর্তাসহ বিভিন্ন ওয়ার্ডের কাউন্সিলর বৃন্দ উপস্থিত ছিলেন। এ অনুষ্ঠানে পৌরসভার বিভিন্ন উন্নয়ন প্রকল্পের কার্যক্রমের ভিডিও চিত্র তুলে ধরেন সহকারি প্রকৌশলী পরাক্রম চাকমা।
সাবেক সাংসদ আব্দুর রহমান বদি বলেন, ‘টেকনাফ-সেন্টমার্টিন আন্ত ফেরিঘাট জেটির জায়গায় ভুলে বাংলাদেশ-মিয়ানমার ট্রানজিট জেটি লেখা হয়েছে। তাঁর পৌরসভাস্থলে নাফনদে এই নির্মিত ৩৩ কোটি টাকার জেটি পরিতাক্ত অবস্থায় পরে রয়েছে। যার কারণে সরকারের কোন রাজস্ব আদায় হচ্ছেনা। যদি সেন্টমার্টিন গামী পর্যটক বাহী জাহাজগুলো এই জেটি দিয়ে চলাচলের সুযোগ পায় সেক্ষেত্রে কোটি টাকা রাজস্ব আদায় হবে। তাঁর পাশপাশি এনজিওতে স্থানীয় শিক্ষিত ছেলে-মেয়েদের চাকরি অগ্রাধিকার দিতে আহবান জানান।’