চট্টগ্রাম এ্যামব্রোশিয়া হোটেলের ১৭ লাখ টাকার ভ্যাট ফাঁকি

জাহাঙ্গীর আলম,বিশেষ প্রতিনিধিঃ চট্টগ্রামের এ্যামব্রোশিয়া হোটেল প্রকৃত বিক্রয় তথ্য গোপন করে ১৭ লাখ টাকার ভ্যাট ফাঁকি দিয়েছে।জাতীয় রাজস্ব বোর্ড (এনবিআর) ভ্যাট গোয়েন্দার অভিযানে এই তথ্য উদ্ঘাটিত হয়।
গোপন সংবাদের ভিত্তিতে ভ্যাট গোয়েন্দার দল ৭ সেপ্টেম্বর রেস্টুরেন্টটিতে আকস্মিক পরিদর্শন করে।এতে তারা কতিপয় বাণিজ্যিক দলিলাদি জব্দ করে; যাতে দেখা যায় মাসিক রিটার্নে তাদের প্রদর্শিত বিক্রয়ের সাথে ব্যাপক গরমিল রয়েছে।
রেস্টুরেন্টটি ১০৫৩ শেখ মুজিব রোড, জীবন বীমা ভবন আগ্রাবাদে অবস্থিত, যার বিআইএন: ০০০১৪৫৪১১ – ০৫০৩। এনবিআরের ভ্যাট অফিস থেকে এই তথ্য জানানো হয়েছে ।
অনুসন্ধান অনুসারে জুলাই ২০১৮ এর জুলাই ২০২০ সময়ে রেস্টুরেন্টের প্রকৃত মোট বিক্রির পরিমাণ ৩.৬৯ কোটি টাকা।এই মূল্যের উপর ভ্যাট আরোপযোগ্য হয় ৫৫.৩৩ লক্ষ টাকা।
কিন্তু এ্যামব্রোশিয়া ঐ একই সময় মাসিক রিটার্নের মাধ্যমে ভ্যাট দিয়েছে মাত্র ৪১.৮৬ লক্ষ টাকা।পরিহারকৃত ভ্যাটের পরিমাণ ১৩.৪৫ লক্ষ টাকা।
সময়মতো ভ্যাট পরিশোধ না করায় ভ্যাট আইন অনুসারে ২% হারে সুদ প্রযোজ্য হবে ১৭.২৪ লক্ষ টাকা।
এখানে উল্লেখ্য করোনাকালীন মার্চ-জুন ২০২০ চার মাস রেস্টুরেন্টটি বন্ধ ছিল এবং তাদের জিরো রিটার্ন বিবেচনায় আনা হয়েছে।ভ্যাট গোয়েন্দা দল কর্তৃক উদ্ঘাটিত এই ফাঁকি করোনার পূর্ব সময়ের।
আজ ১২ অক্টোবর এ্যামব্রোশিয়ার বিরুদ্ধে ভ্যাট ফাঁকির কারণে মামলা দায়ের করেছে ভ্যাট গোয়েন্দা। সংস্থার উপপরিচালক তানভীর আহমেদ অভিযানটি পরিচালনা করেন।