কক্সবাজার এলএ শাখার সার্ভেয়ার ওয়াসিম আটক, কোটি টাকা জব্দ

দিদারুল আলম সিকদার, কক্সবাজার জেলা প্রতিনিধিঃ কক্সবাজার শহরে জেলা প্রশাসনের ভূমি অধিগ্রহণ শাখার সার্ভেয়ারের দুইটি বাসা থেকে ঘুষের ৯৩ লাখের বেশী টাকাসহ বিভিন্ন ব্যাংকের চেক ও নথিপত্র উদ্ধার করেছে র‌্যাব; এসময় একজনকে আটক করা সম্ভব হলেও অপর দুই সার্ভেয়ার পালিযে গেছে।

বুধবার দুপুর ২ টা থেকে বিকাল ৫ টা পর্যন্ত কক্সবাজার শহরের বাহারছড়া ও তারাবনিয়ারছড়া এলাকায় এ অভিযান চালানো হয় বলে জানান র‌্যাব-১৫ রামু ব্যাটালিয়ানের কোম্পানী অধিনায়ক মেজর মেহেদী হাসান।
আটক মোহাম্মদ ওয়াসিম কক্সবাজার জেলা প্রশাসনের ভূমি অধিগ্রহণ শাখার সার্ভেয়ার হিসেবে কর্মরত রয়েছে।
এছাড়া অভিযানে পালিয়ে যাওয়া অপর ২ জন সার্ভেয়ার হল মোহাম্মদ ফরিদ ও মোহাম্মদ ফেরদৌস।
মেজর মেহেদী বলেন, কক্সবাজারে সরকারের বেশ কয়েকটি মেগা-প্রকল্প বাস্তবায়নাধীন রয়েছে। এসব উন্নয়ন প্রকল্পের জন্য সরকারের ভূমি অধিগ্রহণ কার্যক্রমও চলমান। এ ভূমি অধিগ্রহণকে ঘিরে সংঘবদ্ধ একটি চক্র জমির মালিকদের নানাভাবে জিন্মি করে বড় অংকের টাকা আদায়ের অভিযোগ ভূক্তভোগীদের দীর্ঘদিনের।
“ এর প্রেক্ষিতে ভূক্তভোগী বেশ কয়েকজন জমির মালিক র‌্যাবসহ বিভিন্ন আইন শৃংখলা বাহিনীর কাছে লিখিত অভিযোগ দায়ের করে। এসব অভিযোগের ভিত্তিতে র‌্যাবের একটি দল বুধবার দুপর থেকে বিকাল পর্যন্ত কক্সবাজার শহরের বিভিন্ন এলাকায় অভিযান চালায়। অভিযানে ঘুষের ৯৩ লাখের বেশী টাকাসহ একজনকে আটক সম্ভব হলেও অন্য ২ জন পালিয়ে যায়। এসময় বিভিন্ন ব্যাংকের অনুক‚লে বেশ কয়েকটি চেক ও নথিপত্রও উদ্ধার করা হয়। ”
মেহেদী বলেন, “ এর মধ্যে কক্সবাজার শহরের তারাবনিয়ারছড়া এলাকার একটি থেকে নগদ ৬ লাখ টাকাসহ জেলা প্রশাসনের ভূমি অধিগ্রহণ শাখার সার্ভেয়ার মোহাম্মদ ওয়াসিমকে আটক করা হয়। এছাড়া বাহারছড়া এলাকায় সার্ভেয়ার মোহাম্মদ ফরিদের বাসা থেকে নগদ ৬০ লাখ টাকার বেশী এবং মোহাম্মদ ফেরদৌসের বাসা থেকে ৬ লাখ টাকার বেশী উদ্ধার করা সম্ভব হলেও র‌্যাবের উপস্থিতির টের পেয়ে তারা পালিয়ে যায়। অভিযান এখনো অব্যাহত রয়েছে। ”
আটকের বিরুদ্ধে সংশ্লিষ্ট আইনে কক্সবাজার সদর থানায় মামলার প্রস্তুতি চলছে বলে জানান মেজর মেহেদী।