কক্সবাজারে বাড়ানো হয়েছে ১২ ওয়ার্ডের লকডাউন

শিপন পাল, সদর প্রতিনিধি (কক্সবাজার):
কক্সবাজার পৌরসভার ১২টি ওয়ার্ডের লকডাউন বাড়ানো হয়েছে। এর আগে গত ৬ জুন থেকে শুরু হয় লকডাউন। তা চলে ২০ জুন পর্যন্ত। কক্সবাজার পৌরসভার সার্বিক অবস্থা বিবেচনা করে করোনা ভাইরাসের সংক্রমণ কমাতে তা আবারও বাড়ানো হয়েছে। এই লকডাউন ১০ দিন বেড়ে যাওয়ায় চলবে আগামী ৩০ জুন পর্যন্ত।

জেলা প্রশাসনের পক্ষ থেকে জানানো হয়েছে, কক্সবাজারে করোনা আক্রান্ত রোগীর সংখ্যা দিন দিন বৃদ্ধি পাওয়ায় প্রশাসন লকডাউনের মেয়াদ আরো ১০ দিন বাড়ানোর সিদ্ধান্ত নেয়া হয়েছে। নতুন করে বাড়ানো এই লকডাউনে আগের মতই দেশের সার্বিক কার্যাবলী ও জনসাধারণের চলাচলের নিষেধাজ্ঞাসহ অন্যান্য শর্তাবলী বলবৎ থাকবে। এছাড়া লকডাউন বাস্তবায়নে সংশ্লিষ্ট সংস্থা, প্রতিষ্ঠান ও ব্যক্তিবর্গ পূর্বের মত দায়িত্ব পালন অব্যাহত রাখবে।

জেলা প্রশাসনের তথ্য সূত্রে জানা গেছে, ১৯ জুন পর্যন্ত সর্বশেষ হালনাগাদ করোনা ভাইরাস সংক্রমণ বেশি রয়েছে কক্সবাজার সদরে। সংক্রমিত সংখ্যা রয়েছে ৯০৩ জন, সুস্থ হয়েছে ১৬৩, মারা গেছে ১৭ জন। চকরিয়ায় সংক্রমিত ২৮৪ জন, সুস্থ হয়েছে ১৬৮ জন, মারা গেছে ১ জন। উখিয়ায় সংক্রমিত সংখ্যা রয়েছে ২৬৭ জন, সুস্থ হয়েছে ৬৮, মারা গেছে ৪ জন। টেকনাফে সংক্রমিত সংখ্যা রয়েছে ১৬৯ জন, সুস্থ হয়েছে ৪৭, মারা গেছে ৩ জন। রামুতে সংক্রমিত সংখ্যা রয়েছে ১৬৭ জন, সুস্থ হয়েছে ৫৩, মারা গেছে ১ জন। পেকুয়ায় সংক্রমিত সংখ্যা রয়েছে ৮৮ জন, সুস্থ হয়েছে ৫৯, মারা গেছে ১ জন। মহেশখালীতে সংক্রমিত সংখ্যা রয়েছে ৭২ জন, সুস্থ হয়েছে ৫১, মারা গেছে ১ জন। কুতুবদিয়ায় সংক্রমিত সংখ্যা রয়েছে ১৪ জন, সুস্থ হয়েছে ৩, মারা গেছে ১ জন।

কক্সবাজার পৌর আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক উজ্জল কর বলেন, কক্সবাজার পৌরসভার ১২টি ওয়ার্ডে পৌর আওয়ামী লীগের কর্মীরা মাঠে থেকে লকডাউন বাস্তবায়নে সহায়তা করেছে প্রশাসনকে। পৌরবাসীর স্বার্থে শহরের ১২টি ওয়ার্ডে আবারও ১০ দিনের জন্য লকডাউনের সময় বাড়ানো হয়েছে। এই লকডাউন আগামী ৩০ জুন পর্যন্ত চলবে। আগামী ১০ দিনের এই লকডাউনেও প্রশাসনকে সহায়তা করবে কক্সবাজার পৌর আওয়ামী লীগ।

কক্সবাজার পৌর আওয়ামী লীগের সভাপতি মোহাম্মদ নজিবুল ইসলাম জানান, গত ৬ জুন থেকে ২০ জুন পর্যন্ত প্রথম ধাপের লকডাউন সফল সম্পন্ন হয়েছে। প্রাথমিক ওই লকডাউনে প্রশাসনের সাথে সমন্বয় করে লকডাউন সফল করতে কক্সবাজার পৌর আওয়ামী লীগ ছিল সক্রিয়। আগামী ১০ দিনের লকডাউনেও প্রশাসনের সাথে কক্সবাজার পৌর আওয়ামী লীগের কর্মীরা সক্রিয় থাকবে এবং আগের মতোই কার্যকর থাকবে।