একই পরিবারের ৫ জন করোনায় আক্রান্ত;১৭ বাড়ি লকডাউন

রাব্বি ইসলাম, মির্জাপুরঃ টাঙ্গাইলের মির্জাপুরে একই পরিবারের ৫ সদস্যসহ নতুন করে আরো ৬ জনের দেহে করোনা ভাইরাস শনাক্ত হয়েছে। এদের মধ্যে দুইজন নারী রয়েছেনে। এ নিয়ে উপজেলায় দুদিনে মোট আক্রান্ত হলো ১২ জন। নতুন আক্রান্ত ব্যক্তিদের মধ্যে একজন গাজীপুরের কোনাবাড়ি ও আর একজন মুন্সিগঞ্জ ফেরত বলে মঙ্গলবার (২৬‘মে) দুপুরে নিশ্চিত করেন, উপজেলা স্বাস্থ্য ও পরিবার পরিকল্পনা কর্মকর্তা ডা. মাকসুদা খানম।

আক্রান্তরা হলেন, লতিফপুর ইউনিয়নের লতিফপুর শীতেরচালা গ্রামের একই পরিবারের (৪৫), নারী (২৮), (২০), (৩৫), নারী (২৭) ও ওয়ার্শী ইউনিয়নের বাসিন্দা (৪০)।

জানা যায়, একই পরিবারের আক্রান্তদের মধ্যে বাবার বাড়ি কোনাবাড়ি থেকে গত (০৪‘মে) শ্বশুড়বাড়ি শীতেরচালা গ্রামে আসেন। পরে (১৪‘মে) তার শরীরে জ্বর দেখা দিলে ৩ দিন পর (১৮‘মে) হাসপাতালে গিয়ে নমুনা দিয়ে আসেন। পরিবারের অন্যান্য সদস্যদের হালকা হালকা জ্বর থাকার কারণে তাদেরও নমুনা সংগ্রহ করে স্থানীয় স্বাস্থ্য বিভাগ। উয়ার্শী ইউনিয়নের আক্রান্ত ব্যক্তি চাকরিস্থল মুন্সিগঞ্জ ফেরত বলে জানা গেছে।

স্বাস্থ্য কমপ্লেক্স সুত্র জানায়, গত (১৮‘মে) উপজেলার বিভিন্ন এলাকা থেকে মোট ২০ জন ও (২০‘মে) ১৫ জনের নমুনা সংগ্রহ করে পরদিন (১৯ ও ২১‘মে) রাজধানীর আইপিএইচ ল্যাবে টেস্টের জন্য পাঠায় স্থানীয় স্বাস্থ্য বিভাগ। এতে মঙ্গলবার প্রাপ্ত রিপোর্টে নমুনা দেয়া ২০ জন থেকে একই পরিবারের ৫ জন ও ১৫ জন থেকে ১ জনের দেহে করোনা শনাক্ত হয়। এদিকে গত (২৩‘মে) পাঠানো ৭ টি নমুনাতে কেউই আক্রান্ত হয়নি।
এনিয়ে মির্জাপুর উপজেলায় নতুন করে ছয়জনসহ মোট আক্রান্তের সংখ্যা বেড়ে দাড়ালো ২৯ জনে। এদের মধ্যে ১ নারীর মৃত্যু হয়েছে, দু’জন সুস্থ্য হয়েছেন।
নতুন আক্রান্তদের মধ্যে শীতেরচালা এলাকার ৭টি বাড়ি ও উয়ার্শী ইউনিয়নের ১০টি বাড়ি লকডাউন করা হয়েছে বলে জানান উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা মো. আবদুল মালেক।
টাঙ্গাইল জেলার মধ্যে মির্জাপুর উপজেলায়ই আক্রান্তের সংখ্যা সবচেয়ে বেশি বলে নিশ্চিত করেন, জেলা সিভিল সার্জন সুত্র।