ঈদুল আজহা উপলক্ষে দোহারে পশুর হাট বসানো নিয়ে আলোচনা সভা অনুষ্ঠিত

মাকসুমুল মুকিম, দোহার-নবাবগঞ্জ (ঢাকা)

ঢাকার দোহার উপজেলায় পবিত্র ঈদুল আজহা উপলক্ষে পশুর হাট বসানো নিয়ে বিশেষ আলোচনা সভা করেছে দোহার উপজেলা প্রশাসন। সোমবার (১২) জুলাই বেলা ১২ টায় উপজেলা পরিষদের সভাকক্ষে এ আলোচনা সভা অনুষ্ঠিত হয়। দোহার উপজেলার ৪টি নির্দিষ্ট স্থান জয়পাড়া, মেঘুলা, বাংলাবাজার ও মইতপাড়া এলাকায় পশুর হাট বসবে বলে সভায় সিদ্ধান্ত হয়। দোহার উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা এ.এফ.এম ফিরোজ মাহমুদের সভাপতিত্বে করোনা পরিস্থিতিতে স্বাস্থ্যবিধি মেনে পশুর হাট বসানোর বিষয়ে বিভিন্ন দিক-নির্দেশনামূলক আলোচনা করা হয়। সভায় পশুর হাট বসানোর বিষয়ে সিদ্ধান্ত হয়- নির্ধারিত স্থানের বাইরে কোরবানির পশুর হাট বসানো যাবে না। সতের বছরের নিচে এবং ষাট ঊর্ধ্ব বয়সিদের হাটে প্রবেশ করতে দেওয়া যাবে না। একটি পশু কিনতে ২ এর অধিক ব্যক্তি হাটে প্রবেশ করতে দেওয়া যাবে না। হাট পর্যবেক্ষণের জন্য প্রতিটি হাটে মনিটরিং সেলের ব্যবস্থা থাকতে হবে। পশুর হাটের বর্জ্য নিষ্কাশন ও পর্যাপ্ত পরিমাণে লাইটিংয়ের ব্যবস্থা থাকতে হবে। হাটে আসা ক্রেতা ও বিক্রেতাদের অবশ্যই মাস্ক, হ্যান্ড স্যানিটাইজার ও সাবান দিয়ে হাত ধোয়ার ব্যবস্থা রাখতে হবে। পশুর হাটে শরীরের তাপমাত্রা মাপার যন্ত্র থাকতে হবে। ঠান্ডা, জ্বর ও কাশিতে আক্রান্তদেরকে পশুর হাটে প্রবেশ করতে দেওয়া যাবে না। স্বাস্থ্যবিধি সংবলিত ব্যানার, পোস্টার টানানোসহ সব সময় মাইকে স্বাস্থ্যবিধি বিষয়ক প্রচারের ব্যবস্থাও থাকতে হবে। জাল টাকা সনাক্তকরণ যন্ত্র ও স্বেচ্ছাসেবী নিয়োগ থাকতে হবে। এছাড়াও প্রশাসনের পক্ষ থেকে পশুর হাটে নিয়মিত মোবাইল কোর্ট অভিযান পরিচালনা করা হবে। যদি কোনো হাট ইজারাদার এই সিদ্ধান্তগুলো বাস্তবায়ন না করে তবে সেই হাট বন্ধ করে দেওয়া হবে।
সভায় উপস্থিত ছিলেন- দোহার উপজেলা সহকারী কমিশনার (ভূমি) জ্যোতি বিকাশ চন্দ্র, দোহার থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) মো. মোস্তফা কামাল, উপজেলা স্বাস্থ্য ও পরিবার পরিকল্পনা কমকর্তা ডা. মো. জসিম উদ্দিন, দোহার পৌরসভার নির্বাহী প্রকৌশলী মশিউর রহমান, উপজেলার ৮টি ইউনিয়নের চেয়ারম্যান এবং হাট ইজারাদারবৃন্দ।