অনলাইন বিজ্ঞাপনের প্রভাবে বিপাকে প্রিন্ট পত্রিকা

আগামী ২০২১ সাল নাগাদ বিশ্বব্যাপী বিজ্ঞাপনের মাত্র ৬ শতাংশ দৈনিক পত্রিকায় প্রকাশ হবে। এসময় বিজ্ঞাপনের ৫২ শতাংশই প্রচার হবে শুধু অনলাইন প্ল্যাটফর্মে। আর টেলিভিশনে বিজ্ঞাপন যাবে ২৭ শতাংশ।

লন্ডনভিত্তিক জনপ্রিয় মিডিয়া এজেন্সি জেনিথ অপটিমিডিয়া বিজ্ঞাপনের বৈশ্বিক বাজার নিয়ে জরিপ করে এমন ভবিষ্যদ্বাণী করেছে।

সম্প্রতি জার্মানির তথ্য বিশ্লেষণের অনলাইন পোর্টাল স্ট্যাটিস্টাতে জেনিথের বরাতে প্রকাশিত প্রতিবেদন থেকে জানা যায়, ২০২১ সাল নাগাদ বৈশ্বিক বিজ্ঞাপন বাজারের সিংহভাগ দখল করবে অনলাইন প্ল্যাটফর্ম।

অতীতের সব রেকর্ড ভেঙে সেবার সর্বোচ্চ পরিমাণ ৫২ শতাংশ বিজ্ঞাপন প্রচার হবে অনলাইনে। অর্থাৎ ব্যবসায়ীরা বিজ্ঞাপন প্রচারের জন্য সবচেয়ে বেশি ব্যয় করবেন অনলাইন প্ল্যাটফর্মগুলোতে।

জেনিথের বিশ্লেষণ মতে, ২০১৮ সালে অনলাইনে বিজ্ঞাপনের হার ছিল ৪৪ শতাংশ। চলতি বছর তা হতে পারে ৪৭ শতাংশ। ২০২১ সালে গিয়ে তা পৌঁছবে ৫২ শতাংশে।

অন্যদিকে, এই সময় নাগাদ টেলিভিশনে বিজ্ঞাপন প্রচার হবে প্রায় ২৭ শতাংশ। বিলবোর্ড, পোস্টারিং-এর মতো আউটডোর বিজ্ঞাপন হবে ৭ শতাংশ। সবচেয়ে আশঙ্কাজনক সময় আসবে ছাপা পত্রিকার জন্য।

২০২১ সাল নাগাদ ছাপা পত্রিকায় বিজ্ঞাপন প্রকাশ হবে মাত্র ৬ শতাংশ। একইসময়ে রেডিওতে ৫ শতাংশ, ম্যাগাজিনে ৩ এবং সিনেমার মাধ্যমে বিজ্ঞাপন প্রচার হবে মাত্র ১ শতাংশ।

জেনিথ তাদের বিশ্লেষণে বলছে, ইন্টারন্যাশনাল টেলিকমিউনিকেশন ইউনিয়নের (আইটিইউ) মতে, চলতি বছর নাগাদ পৃথিবীর প্রায় অর্ধেক মানুষ ইন্টারনেটের আওতায় আসবে।

বিশেষ করে মোবাইল ইন্টারনেট ব্যবহারকারী দ্রুততারে বাড়বে। এতে অনুঘটক হিসেবে কাজ করবে পঞ্চম প্রযুক্তির মোবাইল নেটওয়ার্ক ফাইভ-জি। ফলে বিভিন্ন ধরনের অনলাইন ভিডিও এবং সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে বাড়বে বিজ্ঞাপনের হার।